মার্কিন কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দিল চীন

USA Flag

করোনা ভ্যাকসিনের গবেষণা চুরির অভিযোগ নিয়ে এই দুই দেশের মধ্যে নতুন উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষ টেক্সাসে হিউস্টনে চীনের কনস্যুলেট বন্ধ করার নির্দেশ দেয়ার পর বেইজিংও পাল্টা ব্যবস্থা নিয়েছে।

রুশ সংবাদ মাধ্যম -আরটি জানায়, গতকাল শুক্রবার সকালে চীনের শিচুয়ান প্রদেশের মার্কিন কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে চীন।

এই দিনের এক বিবৃতিতে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, চেংদুতে চীন মার্কিন কনস্যুলেট জেনারেলের সকল ধরনের কার্যক্রম ও প্রক্রিয়ার লাইসেন্স বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সে সঙ্গে কনস্যুলেট-টির সকল ধরনের বাণিজ্য এবং অন্যান্য কর্মকাণ্ডের সুনির্দিষ্ট বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছেও বলে বিবৃতিতে জানানো হয়।

গত মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্র অভিযোগ তোলে, চীন তাদের তৈরি করোনা ভাইরাস টিকা গবেষণা হ্যাকিং করার চেষ্টা করছে। হ্যাকিংয়ের সঙ্গে জড়িত থাকার জন্য চীনের দুজন নাগরিককে অভিযুক্ত করা হয়।

একই দিন রাতে টেক্সাসের হিউস্টনে চীনা কনস্যুলেট ভবন থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, গোপন নথি পুড়াতেই আগুন লাগানোর ঘটনা এটি।

আগুন লাগার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় মার্কিন পুলিশ। তবে কাউকেই কনস্যুলেটের ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

পরদিন বুধবার সকালে হিউস্টনে চীনা কনস্যুলেট শুক্রবারের মধ্যে বন্ধ করার জন্য মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নির্দেশ দেয়।

এ ঘটনার পাল্টা ব্যবস্থা নেয়ার কড়া হুশিয়ারি দেয় চীন। ঠিক একদিন পরেই চেংদুতে অবস্থিত মার্কিন কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ আসল।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার সান ফ্র্যান্সিসকোতে অবস্থিত চীনা কনস্যুলেট থেকে মার্কিন গোয়েন্দারা চারজন কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তারা ভিসায় চীনা সামরিক বাহিনীর পরিচয় গোপন করা।

এক মার্কিন প্রসিকিউটর জানান, যুক্তরাষ্ট্রে সামরিক বিজ্ঞানী পাঠানোর পরিকল্পনার অংশ হিসাবেই কাজ করছে চীনের এসব নাগরিকরা।

– নিউজ ডেস্ক / খলিফা নিউজ