তীব্রতর কর্মসূচি দেয়া হবে – রিজভী

বিএনপি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ঢাকার ২ (দুই) সিটির ভোটে কারচুপির অভিযোগ তুলে ভোট ডাকাত-দের বিরুদ্ধে তীব্র থেকে আরো তীব্রতর কর্মসূচি দেয়ার কথা ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। গতকাল বিএনপির ডাকা হরতাল চলাকালে সকাল ৯টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের অবস্থান নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, অন্যায়, অত্যাচার, অবিচার, জনগণের সঙ্গে প্রতারণার পরিমাণ এত বেশি হয়ে গেছে যে এখন আমাদের তীব্র থেকে তীব্রতর আন্দোলন কর্মসূচি দিতেই হবে। সেই আন্দোলনেরই এক ধাপ হচ্ছে হরতাল। হরতালের প্রাসঙ্গিকতায় তিনি বলে, ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) হচ্ছে ভোট ডাকাতির একটা যন্ত্র। ইভিএম, ভোট ডাকাতি সহ সবকিছু মিলিয়ে যেভাবে দুই সিটির নির্বাচন সরকার ছিনতাই করেছে, তার বিরুদ্ধেই আমাদের এই হরতাল।

সরকার টিকতে পারবে না এমন হুশিয়ারি দিয়েই বিএনপির এই নেতা বলেন, সরকার জোর করে ক্ষমতায় টিকে আছে। তারা যদি মনে করে এভাবেই দেশ চলবে সেটা কোনো দিন হবে না, হতে পারে না। ন্যায়ের জয় হবে, সব অন্যায়ের পতন হবেই। সরকারের চলে যাওয়াটা কেমন হবে সেটা সবার দেখার বিষয়।

হরতাল সফল দাবি করে তিনি বলেন, চারদিকে গাড়ি-ঘোড়া চলছে না। দোকানপাটও বন্ধ আছে। জনগণ স্বতস্ফূর্তভাবে হরতাল পালন করছে। জনগণ আমাদের ডাকা হরতালে সম্পূর্ণ সমর্থন দিয়েছে। এটাই আমাদের পাওয়া।

এসময় রিজভীর পাশে ছিলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন-নবী খান সোহেল, নিপুন রায় চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ সহ কয়েকজন নেতাকর্মী।

-নিউজ ডেস্ক / খলিফা নিউজ