করোনা ভাইরাস হসপিটাল

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণ করতে চেষ্টা অব্যাহত রাখছে চীন। তারা মাত্র ১০ দিনে ১ হাজার শয্যাবিশিষ্ট করোনা ভাইরাসের হাসপাতালটি গত বুধবার থেকে চালু করে। এরই মধ্যে করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের জন্য দ্বিতীয় হাসপাতাল তৈরির কাজও শুরু করে দিয়েছে চীন।

আগামী ৫ ফেব্রুয়ারি এই হাসপাতালটি চালু করার কথা রয়েছে। চীনের হুবেই প্রদেশের লেশেনশান শহরে এই হাসপাতালটি তৈরি করা হচ্ছে।

যুক্তরাজ্যের সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইলের এক খবরে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় হাসপাতালটি ইতিমধ্যে আকার নিতে শুরু করেছে এবং তাতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়ে গেছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই হাসপাতালটিও চিকিৎসা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস চীনের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রায় সাড়ে ৯ হাজারের বেশি মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পড়েছে। এই প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে আনতে দেশ ব্যাপী চারটি চিকিৎসা সেবা প্রকল্পের কথা জানিয়েছে চীন সরকার। যার মধ্যে হুয়াংগ্যাংয়ে নির্মিত প্রথম হাসপাতালটি -তে গত বুধবার থেকেই রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া শুরু হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ডিসেম্বরে চায়নার উহানে প্রথম এই ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। এরপর সীমানা পেরিয়ে এই ভাইরাস রাজধানী বেইজিং, ম্যাকাও, সাংহাই এবং হংকংয়ের বাইরে বিশ্বের প্রায় কমবেশি ১৯টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। চীনের বাইরেও ৯১ জনের দেহে নভেল করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে চীনের বাইরে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত কারও মৃত্যুর তথ্য এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে এখন পর্যন্ত চীনে প্রায় ২১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ১০হাজার জন এর মত।

– নিউজ ডেস্ক / খলিফা নিউজ