রাজশাহীর গোদাগাড়ী সীমান্ত এলাকা থেকে পাঁচ বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার খরচাকা সীমান্ত থেকে তাদের ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের মধ্যে একজনকে নির্যাতন করা হয় বলেও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

যাদের ধরে নিয়ে গেছে তারা হলেন- সেলিম রেজার ছেলে রাজন হোসেন (২৫), মনিবুলের ছেলে সোহেল (২৭), মৃত কালুর ছেলে কাবিল (২৫), মৃত রফিকুলের ছেলে শাহীন (৩৫) এবং আল্লামের ছেলে শফিকুল (৩০)।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তারা সবাই রাখাল। নিজেদের বাড়িতে পালন করা গবাদিপশু তারা পদ্মা নদীর চরে চরাতে যান। প্রত্যকের বাড়ি পবা উপজেলার গহমাবোনায় পবার হরিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বজলে রেজবী আল হাসান মুঞ্জিল তাদের পরিচয় নিশ্চিত করে জানান, চরে গরু চরাতে গিয়েছিলেন কয়েকজন। তাদের মধ্যে এই পাঁচজনকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ধরে নিয়ে যাওয়ার আগে এক রাখালকে নির্যাতন করেছে বিএসএফ। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) রাজশাহী – ১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ জানান, সীমান্ত থেকে চার / পাঁচজনকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে আমাদের কাছে খবর আছে। পতাকা বৈঠকের জন্য বিএসএফকে চিঠি দেয়া হয়েছে। আজ শনিবার সকালে পতাকা বৈঠক হতে পারে। পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে রাখালদের ফিরিয়ে আনা হবে বলেও জানান তিনি।